New User? | Forgot Password

Prose Library - Today's featured Prose

মানুষের জন্ম লগ্ন থেকেই শুরু হয় হাত-পা ছোড়া।
এর আবার নানান ব্যাখ্যা আছে।
কেউ বলেন হজম শক্তি বাড়ানোর কসরত।
কেউ কেউ বলেন লম্বা হওয়ার প্রবণতা বিবিধ।
মোদ্দা কথা হল হাত পা ছুড়ে, যে দৌড় একবার শুরু হয় তার শেষ একমাত্র চির নিদ্রায়।
তার মধ্যেও তাৎপর্য আছে, মৃত্যুর পূর্বেও মানুষের অঙ্গ সঞ্চালন করা, শরীরে কাপুনি, মুখ দিয়ে অস্ফুট স্বর, নড়েচড়ে ওঠার অন্তিম প্রয়াস।
অবশ্য কিছু ক্ষেত্রে বাদ দিয়ে।
যেমন ঘুমের মধ্যে সাইলেন্ট অ্যাটাক,
সিভিএ রোগী, বা যারা কোমায় চলে যান প্রভৃতি।
ফিরে আসি পুরনো কোথায়।
শৈশবে নিজের পায়ে দাঁড়িয়ে ওঠার জন্য অঙ্গ সঞ্চালন প্রতিমুহূর্তে পড়ে যাওয়া আবার চেষ্টা।
মাকে দেখতে না পেয়ে খুঁজে বেড়ানো।
খিদের বহিঃপ্রকাশের হিসাবে কান্না হাত পা ছুড়ে নিজের দিকে দৃষ্টি আকর্ষণ করা।
একটু বড় হলে স্কুলে বন্ধুদের সাথে ছোটাছুটি মাঠে ময়দানে খেলাধুলার জন্য হাত পা নাড়াচাড়া।
গ্রামের ছেলেদের পুকুরে ঝাঁপানো।
গাছে চড়া সবসময় অংঙ্গ সঞ্চালনের ব্যাপারটা রয়ে যাচ্ছে।
স্কুল পেরিয়ে যৌবন-- প্রেম ভালোবাসা, ডেটিং পারলে সময়কে মুঠোয় বন্দি করে ছুটে যাওয়া।
অফিস টাইম মত পৌঁছানোর জন্য ছোটা।
বাসে, ট্রামে, মেট্রোতে ছোটাছুটি করে যাওয়া আসা।
অবশেষে শান্তির নীড়ে বউ-বাচ্চার মুখ দেখার জন্য আকুলি বিকুলি।
কতক্ষণে পৌঁছানো যায় তার জন্য পেল্লায় ছুট।
পরিবারে বা পাড়াপড়শীর কেউ অসুস্থ হলে হাসপাতলে, নার্সিংহোমে, ছোটাছুটি।
এরপর আছে নানা পূজা পার্বণ ঘরে-বাইরে নানান সামাজিক অনুষ্ঠান তাতে ছোটাছুটি করে সক্রিয় অংশ নেওয়া।
দূরে কাছে ভ্রমণে যাওয়া সেখানে রয়ে গেছে একই রকম ব্যস্ততা।
দাম্পত্যজীবনেও এর প্রতিফলন আছে।
আমি আর বিস্তারিত বর্ণনায় গেলাম না।
আমার থেকে সবাই অনেক বুদ্ধিমান ও বুদ্ধিমতী।
" সমাদ্দার কে লিয়ে ইশারাই কাফি হ্যায়।"
গোদা বাংলা হল জন্মাবার পর সেই যে অঙ্গ সঞ্চালন শুরু ক্রমশ ছোটাছুটিতে রূপান্তরিত হয়ে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগের পূর্ব পর্যন্ত তার প্রকাশ রয়ে যায়।
এই ভাবনাটা আমার সম্পূর্ণ নিজস্ব দৃষ্টিকোণ থেকে।
ভিন্ন মতবাদ থাকতেই পারে।
বাকিটা আমি পাঠকদের উপর ছেড়ে দিলাম।

" আমার কথাটি ফুরোলো
নড়াচড়া টুকু জুড়োলো "

©®

ফাল্গুনী চট্টোপাধ্যায়
১৫/০৫/২০২২





Phalguni chattopadhyay

 

0 Comments | 0 Claps
পরমাণু গল্প ( অবশ্যই নয় শব্দের মধ্যে)
সুশান্ত ঘোষ ( ভাবনার উদ্ভাবক)

১]
অজানা আতঙ্কে

ঘোমটা সরাতেই চমকে বিনায়ক । সরমা ? কিন্তু আমি তো নিজেই-------

২]
অজানা প্রশ্ন

সাহিত্যের আঙ্গিনায় সৃষ্টির সৃজনশীল কলমে আজও গড়াপেটা । শেষ কোথায় ?

৩]
ভাগ্যের লিখন

সুভাষের ইউনিভার্সিটির ফলাফল হাতে সুবিনয়ের ফটোর সামনে অশ্রুসজল দীপিকা ।

৪]
ভক্তের ভগবান

গাজনের উৎসবে গ্রামেগঞ্জে আজও ভক্তদের রক্তারক্তি চেহারায় অজ্ঞান রামলাল ।

৫]
ওরা উৎসৃঙ্খল

শিবরাত্রির জ্যান্ত শিবদের উৎসৃঙ্খলতায় হয়তো মহাদেবও কখনও শিহরিত ।

৬]
শান্তিকামী মানুষ

দ্রব্যমূল্যবৃদ্ধি, বেকারত্ব, নাজেহাল হীরেনবাবু । তবুও উচ্ছেদের ভয়ে ঝান্ডা হাতে।

৭]
ধূমকেতু

শুভময়ের সাথে বাঁচতে চেয়েছিল মিতা । কিন্তু ভগবানের লিখন খণ্ডাবেকে ?

৮]
বিধির বাঁধনে

দুর্ঘটনার পরেও একমাত্র বেঁচেছিলেন হারুদা । কিন্তু পরিবারের সবাই শেষ ।

৯]
আবরণের দাগ

অপরূপা সত্যিই ভীষণ ভালোমানুষ । গায়ের রঙে পরিবারের আপত্তি ।

১০]]
ফুটপাতবাসী

বিভৎস দাবদাহে মানুষ গৃহবন্দি । ফুটপাতের বাচ্ছাগুলো আজও পথেতে ।

স্বত্ব সংরক্ষিত

Susanta Ghosh

 

0 Comments | 0 Claps

All Prose

Events

Surojit Online

কবিতাক্লাব ডট কম

এই তো সেদিন, ফেসবুকের পেজে লিখলাম একটা লাইন , “আর ভাল্লাগেনা তোমায় ছাড়া।”বন্ধুদের বললাম, সবাই মিলে কবিতা লিখলে কেমন হয়? হঠাৎ দেখি , চার পাতার একটা কবিতা তৈরি হলো, একেবারে চোখের সামনে, সব বন্ধুদের লেখা, মিলিয়ে মিলিয়ে।

See BLOG Read More

Search Writing

 

Search Writer By

 

Statistics

Number of VISITORS : 1137514

REGISTERED USERS :

Number of Writers : 1783

Total Number of Poems : 32966

Total Number of Prose : 1314

An Initiative By Surojit O Bondhura Kobita Club
Official Radio Partner

Designed and Developed by : NOTIONAL SYSTEMS